চেঁপে ধরেছে বাংলাদেশ, ১২ ওভার শেষে দেখুন স্কোর

0
151

মিরপুরে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে মোটে ২৫৫ রান তুলতে পেরেছে মাশরাফি বিন মর্তুজার দল। অর্থাৎ ২৫৬ রান করতে পারলেই সিরিজে সমতা ফেরাবে ক্যারিবীয়রা।

শুরুতেই লিটন-ইমরুলকে হারিয়ে বিপদে পরা বাংলাদেশকে উদ্ধার করে তামিম-মুশফিক জুটি। দুজনেই তুলে নেন অসরাধারণ দুটি ফিফটি। কিন্তু ফিফটির পর আর আগাতে পারেননি তামিম। বিশুর বলে ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে বাউন্ডারিতে ধরা পড়েন তিনি। ফিরে যান ৫০ রান করেই।

ক্যারবীয়দের ভয়ানক পেস নিয়ে শুরু থেকেই কিছুটা ভীতি ভর করেছিল টাইগার ব্যাটসম্যানদের উপর। ক্যারবীয় পেসার ওশানা থমাসের ১৪৫+ গতি যেকোনো ব্যাটসম্যানের জন্যই হুমকি স্বরুপ। ব্যাতিক্রম ছিল না লিটন দাসের জন্যও।

ম্যাচের ২য় ওভারে ওশানা থমাসের ১৪০+ গতির ডেলিভারি সরাসরি লিটনের পায়ের এঙ্কেলে আঘাত হানে। ব্যাথায় আর উঠে দাড়ানোর অবস্থা তৈরি করতে পারেননি লিটন। যার কারণে ইনজুরিতে পড়ে স্ট্রেচারে করে মাঠ ছাড়তে হয় তাকে।

লিটনের পর ব্যাটিংয়ে নেমে রানের খাতা না খুলেই ফিরে যান ইমরুল কায়েস। থমাসের গতিতে পরাস্ত হয়ে উইকেট রক্ষকের হাতে ক্যাচ তুলে দেন তিনি।

এরপর তামিম-মুশফিকের ব্যাটে ঘুড়ে দাড়ায় বাংলাদেশ। কিন্তু ফিফটির কোটা পার করেই প্যাভলিয়নের পথ ধরেন দুজনেই। আউট হওয়ার আগে ৬২ রান এসেছে মুশফিকের ব্যাট থেকে।

এরপর রিয়াদ ৩০ রান করে আউট হয়েছেন। ৫ম উইকেটের পতনের পর ব্যাটিংয়ে নামেন লিটন দাস। লিটনের সাথে জুটি গড়ে ফিফটি তুলে নেন সাকিব। কিন্তু এরপর ফিরে যান লিটন-সাকিব দুজনেই।

শেষ পর্যন্ত ৫০ ওভার শেষে ৭ উইকেট হারিয়ে ২৫৫ রানে থেমে যায় বাংলাদেশের ইনিংস। জয়ের জন্য উইন্ডিজের প্রয়োজন ২৫৬ রান।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারিয়েছে উইন্ডিজ। ৩ রান করেই মিরাজের শিকার হয়েছেন চন্দরপাল হেমরাজ।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজের সংগ্রহ ১২ ওভার শেষে ১ উইকেট হারিয়ে ৪২ রান। ব্রাভো ১৫ ও হোপ ২৩ রান করে ব্যাট করছেন।