পশ্চিমে ঘূর্ণিঝড় ‘কিয়ার’, পূর্বদিকে ‘বুলবুল’

আরব সাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘কিয়ার’ ২০০ কিলোমিটার বেগে ধেয়ে আসায় ভারতের পশ্চিম উপকূলের দুই প্রদেশ কর্ণাটক ও গোয়ায় যখন রেড এলার্ট জারি করা হয়েছে তখনই পূর্বদিক থেকে আরেকটি ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ ধেয়ে আসছে।

ফিলিপাইনের উপকূলে উত্তর প্রশান্ত মহাসাগরের অংশ ফিলিপাইন সাগরে এই মুহূর্তে বুলবুল নামের এই ঘূর্ণিঝড় তৈরি হচ্ছে।

ইতোমধ্যে ঘূর্ণিঝড় ‘কিয়ার’ এর প্রভাবে গোয়ায় বেশ কিছু গাছ উপড়ে পড়ার খবর জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম।

অন্যদিকে, আগামী ১-৩ নভেম্বর থাইল্যান্ডের উপকূলবর্তি সমুদ্র হয়ে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মিয়ানমারের উপকূলে আছড়ে পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।

আর আগামী ৬ থেকে ৭ নভেম্বরের মধ্যে সেটি আন্দামান সাগর হয়ে ভারতের উপকূলবর্তী অঞ্চলে পৌঁছাতে পারে।

তবে, পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ আঘাত হানবে না বলেই মনে করা হচ্ছে। দক্ষিণবঙ্গে সামান্য বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা তৈরি হতে পারে।

এছাড়া এটি হবে এবছরে বঙ্গোপসাগরে প্রথম ঘূর্ণিঝড়।

অন্যদিকে গত দু-তিন দিন একটানা বৃষ্টির প্রভাবে জেরবার হয়েছে দক্ষিণবঙ্গ। তবে, শনিবার সকাল থেকেই ক্রমশ ঝাড়খণ্ডের দিকে

সরেছে পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগরের নিম্মচাপ। রবিবার সকাল থেকে দক্ষিণবঙ্গের আকাশ ছিল মেঘহীন।