নামাজে যে ৭টি কাজ পালন করা আবশ্যক,জেনে নিন !

নামাজে যে ৭টি কাজ পালন করা আবশ্যক,জেনে নিন !

নামাজে অবশ্য পালনীয় কি কি?

উত্তর : নামাজের ভেতরে ও বাইরে কিছু অবশ্য পালনীয় বিষয় রয়েছে, যেগুলো ঠিকমতো পালন না করলে নামাজ শুদ্ধ হবে না।

নামাজ শুরুর আগে ৭টি কাজ পালন করা আবশ্যক সেগুলোকে নামাজের আরকান বলা হয়। সেগুলো হলো

১. শরীর পাক হওয়া : এ জন্য ওজুর দরকার হলে ওজু বা তায়াম্মুম করতে হবে, গোসলের প্রয়োজন হলে গোসল বা তায়াম্মুম করতে হবে।

২. কাপড় পাক হওয়া : পরনের জামা, পায়জামা, লুঙ্গি, টুপি, শাড়ি ইত্যাদি পাক পবিত্র হতে হবে।

৩. নামাজের জায়গা পাক হওয়া : অর্থাৎ নামাজির দুই পা, দুই হাঁটু, দুই হাত ও সিজদার স্থান পাক হওয়া।

৪. ছতর বা শরীর ঢাকা : পুরুষের নাভি থেকে হাঁটু পর্যন্ত এবং মহিলাদের দুই হাতের কব্জি, পদদ্বয় এবং মুখম-ল ব্যতীত সমস্ত দেহ ঢেকে রাখা।

৫. কিবলামুখী হওয়া : কিবলা মানে কাবার দিকে মুখ করে নামাজ পড়া।

৬. ওয়াক্ত অনুযায়ী নামাজ পড়া : প্রত্যেক ওয়াক্তের নামাজ সময়মতো আদায় করতে হবে।

৭. নামাজের নিয়ত করা : নামাজ আদায়ের জন্য সেই ওয়াক্তের নামাজের নিয়ত করা আবশ্যক।

নামাজ শুরু করার পর ৬টি কাজ পালন করা আবশ্যক, সেগুলোকে নামাজের আরকান বলা হয়। সেগুলো হলো

১. তাকবিরে-তাহরিমা বলা : অর্থাৎ মহান আল্লাহর বড়ত্বসূচক শব্দ দিয়ে নামাজ আরম্ভ করা। তবে ‘আল্লাহু আকবর’ বলে নামাজ আরম্ভ করা সুন্নাত।

২. দাঁড়িয়ে নামাজ পড়া : মানে কিয়াম করা।

৩. কিরাত পড়া : চার রাকাতনিশিষ্ট ফরজ নামাজের প্রথম দুই রাকাত এবং ওয়াজিব, সুন্নাত, নফল নামাজের সব রাকাতে কিরাত পড়া ফরজ।

৪. রুকু করা : প্রতিটি নামাজের প্রত্যেক রাকাতে রুকু করা ফরজ।

৫. সিজদা করা : নামাজের প্রত্যেক রাকাতে সিজদা করা ফরজ।

৬. শেষ বৈঠক করা : নামাজের শেষ রাকাতে সিজদার পর তাশহুদা পড়তে যতটুকু সময় লাগে ততটুকু সময় বসা ফরজ।

ধ’র্মকথা নিয়ে আপনার কোনো প্রশ্ন জানার থাকলে আমাদের কাছে লিখে পাঠান