স্বর্ণের চাহিদা ও বিক্রি ক্রমশ কমছে

0
11

আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের চাহিদা ও বিক্রি ক্রমশ কমছে। ওয়ার্ল্ড গোল্ড কাউন্সিলের (ডব্লিউজিসি) প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে আসে।







প্রতিবেদন অনুযায়ী, স্বর্ণের বৈশ্বিক চাহিদা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৬ শতাংশ কমেছে। ডলারের শক্তিশালী অবস্থানের কারণে মুদ্রাবাজারের প্রতি বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ বেশি থাকায় স্বর্ণের চাহিদা আগের তুলনায় কমেছে বলে মনে করছেন খাতসংশ্লিষ্টরা।







২০১৮ সালে জানুয়ারি-জুন সময়ে বিশ্বব্যাপী স্বর্ণের চাহিদা দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৯৬০ টনে, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৬ শতাংশ কম। ২০১৭ সালের প্রথম ছয় মাসে স্বর্ণের বৈশ্বিক চাহিদা ছিল ২ হাজার ৮৬ টনের সামান্য বেশি। সেই হিসাবে চলতি বছরের প্রথমার্ধে বিশ্বব্যাপী মূল্যবান ধাতুটির চাহিদা প্রায় ১২৬ টন কমেছে। ২০০৯ সালের পর এটাই কোনো বছরের প্রথম ছয় মাসে স্বর্ণের সর্বনিম্ন চাহিদা বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।







এ বিষয়ে ডব্লিউজিসির হেড অব মার্কেট ইন্টেলিজেন্স অ্যালিস্টিয়ার হিউইট বলেন, চীন-যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্যযুদ্ধ, ইরান ইস্যুতে ভূরাজনৈতিক উত্তেজনাসহ বিভিন্ন কারণে বৈশ্বিক অর্থনীতি চাপের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। এর জের ধরে মুদ্রাবাজারে ডলার আগের তুলনায় চাঙ্গা হয়ে উঠেছে। ফলে বিনিয়োগকারীরা এখন মুদ্রাবাজারমুখী। এর প্রভাব পড়তে শুরু করেছে মূল্যবান ধাতুর বাজারে। স্বর্ণের চাহিদা কমতির দিকে রয়েছে। একই সঙ্গে কমছে মূল্যবান ধাতুটির দামও।







এদিকে চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকেও (এপ্রিল-জুন) স্বর্ণের বৈশ্বিক চাহিদা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ৪ শতাংশ কমেছে বলে জানিয়েছে ডব্লিউজিসি। প্রতিষ্ঠানটির তথ্য অনুযায়ী, এ সময় বিশ্বব্যাপী মোট ৯৬৪ টনের সামান্য বেশি স্বর্ণ ব্যবহার হয়েছে, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় প্রায় ৪৩ টন কম।