ঝড় আসছে, হুমকির মুখে গুহায় দ্বিতীয় দিনের অভিযান

0
29

থাইল্যান্ডের গিরি গুহায় আটকে পড়া ১২ কিশোর এবং তাদের কোচকে উদ্ধার অভিযানের প্রথম দফায় গতকাল ৪ জনকে বের করে এনেছিলেন ডুবুরিরা। এরপর রাতে অক্সিজেন ট্যাংকে সমস্যা দেখা দেয়ায় সকাল পর্যন্ত অভিযান স্থগিত করা হয়।







আজ সোমবার সকাল থেকে নতুন করে শুরু হয় উদ্ধার কাজ। ১৮ জন ডুবুরি গতকালের মতো আবারও গুহার ভেতরে ঢুকেন। গুহার ৪ কিলোমিটার ভেতরে যে জায়গায় কিশোররা অবস্থান করছে সেখানে পৌঁছা এবং ফিরে আসায় সময় লাগছে প্রায় ১২ ঘণ্টা।







আজকের অভিযান শুরুর কয়েক ঘণ্টা পর শিয়াং রাই প্রদেশের ওই অঞ্চলে ঝড় ও বড় ধরনের বৃষ্টি হওয়ার পুর্বাভাস দিয়েছে আবহওয়া অধিদপ্তর। থাই সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে দেখা যাচ্ছে, দুপুর থেকে ইতোমধ্যে আকাশ ঘোর অন্ধকার হয়ে গেছে। যে কোনো মুর্হতে মুষলধারে বৃষ্টি নামতে পারে। এমনটি হলে উদ্ধার অভিযান হুমকির মুখে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা। কারণ, গুহার পানির স্তর বেশি উপরে উঠতে থাকলে তাতে চলাচল অসম্ভব হয়ে পড়বে।







এর আগে রোববার রাতে বের করে আনা হয় ৪ কিশোরকে। গুহার মুখ থেকেই অ্যাম্বুলেন্স ও হেলিকপ্টারে তাদের নেয়া হয় হাসপাতালে।

থাই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনুপং পাওজিন্দা জানিয়েছেন, উদ্ধার হওয়ার চার কিশোর সুস্থ আছেন। তারপরও তাদেরকে সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। তিনি জানান, ১২ কিশোরের মধ্যে কাকে আগে আর কাকে পরে বের করা হবে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন উদ্ধারকারী দলে থাকা একজন অস্ট্রেলীয় চিকিৎসক।







তিনি মূলত কিশোরদের শারিরীক ও মানসিক স্বাস্থ্যগত দিক বিবেচনায় নিয়ে সিরিয়াল নির্ধারণ করছেন। আজ আরও কয়জনকে বের করে আনা সম্ভব হবে তা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।

আটকে পড়া বাকি ৮ কিশোর ও তাদের কোচকে উদ্ধারেও চলছে তোড়জোড়। এয়ার ট্যাংক পুনঃস্থাপনের জন্য রাতে বন্ধ রাখা হয় উদ্ধার অভিযান। অভিযানে অংশ নিচ্ছে ৯০ জন ডুবুরি। এর মধ্যে ৪০ জন থাইল্যান্ডের।







পরিকল্পনা অনুসারে, প্রত্যেক কিশোরের সাথে ছিলেন দু’জন করে ডুবুরি। গুহার ভেতর থেকে বের হওয়ার পথে সময় লাগে ছয় ঘন্টা।







২৩ জুন দুর্গম থাম লুয়াং গুহায় ঘুরতে যায় ১২ কিশোর ফুটবলার ও তাদের কোচ। হঠাৎ পাহাড়ি ঢলে গুহার বিভিন্ন অংশ ডুবে গেলে আটকা পড়ে তারা। ২ জুলাই সন্ধান মিললেও, বিপজ্জনক গুহা থেকে তাদের উদ্ধার নিয়ে অনিশ্চয়তা কাটছিলো না।