Sunday , 20 May 2018

বালির বাদশাহ মার্সিও মিজায়েল, সেনাপতি তার কুকুর

বালির তৈরি কোনো স্থাপনার অর্থই হল তা ক্ষণস্থায়ী। হয়তো বাতাসে উড়বে, না হয় পানি লেগে ধসে পড়বে। কিন্তু বালি দিয়ে পুরো একটা প্রাসাদ বানিয়ে রীতিমতো তাতে বসবাস করছেন ব্রাজিলের এক নাগরিক।







দীর্ঘ ২২ বছর ধরে বালির প্রাসাদে বাস করছেন মার্সিও মিজায়েল মাতোলিয়াস নামের এ ব্যক্তি। স্থানীয়রা ও তার বন্ধু মহল তাকে ‘কিং বা বাদশাহ’ বলে ডাকে। ব্রাজিলের রিও ডি জোনোরিওর বারা দা তিজুকা সমুদ্র সৈকতে বানানো হয়েছে এ প্রাসাদ। খবর ডেইলি মেইলের।







বাদশাহ মার্সিওর রাজপ্রাসাদ থাকলেও নেই কোনো কর্মচারী। তবে তার সাথে থাকে একটি কুকুর। বলতে গেলে সে-ই কুকুরটিই তার সেনাপতি। একাই প্রাসাদের দেখভাল করেন তিনি। প্রাসাদের বাইরে একটি সিংহাসনও রয়েছে। সেখানে প্রতিদিন তিনি বসেন। স্থানীয় বাসিন্দা ও পর্যটকদের সঙ্গে কথা বলেন। মার্সিও বলেন, রিও ডি জেনিরিওর পাশে গুয়ানাবারা উপত্যকায় আমি বড় হয়েছি। আমি ছোটবেলা থেকেই সমুদ্র সৈকতে বাস করে আসছি। সমুদ্রের পাশে বাস করার জন্য মানুষ বহু অর্থ ব্যয় করে। কিন্তু আমি এখানে বিনা খরচে বসবাস করছি এবং ভালোই আছি।







তার ছোট ওই রাজকীয় প্রাসাদটিতে একজনের থাকার মতো জায়গা রয়েছে। রয়েছে একটি ছোট লাইব্রেরি। সেখানে বহু লেখকের বইও রয়েছে। কারণ বালির বাদশাহ মার্সিওর বই পড়ার শখ। প্রাসাদ যাতে ধসে না পড়ে এজন্য প্রতিদিন এতে পানি দেন তিনি। গ্রীষ্মকালে বালি গরম হয়ে গেলে প্রাসাদে থাকতে কষ্ট হয় মার্সিওর। সে সময় তিনি পাশে বন্ধুর বাড়িতে থাকেন।