দারুণ খুশি সাকিব

0
22

আঙুলের চোট এখনও ভোগাচ্ছে সাকিব আল হাসানকে। যত দ্রুত সম্ভব তিনি আবার আঙুলে অস্ত্রোপচার করাতে চান। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ব্যথানাশক ইনজেকশন নিয়ে খেলেছেন। ব্যাটে-বলে অসাধারণ অলরাউন্ড পারফরম্যান্স দেখিয়েছেন। বৃহস্পতিবার দেশে ফিরেই জানালেন, সফরে দারুণ খুশি তিনি-







প্রশ্ন : দাপটের সঙ্গে খেলে জিতলেন। কেমন লাগছে?

সাকিব : সব মিলিয়ে বলতে গেলে সফরটা সফল। তিনটি ট্রফির মধ্যে দুটি জিতেছি। দেশের বাইরে তো এরকম ফল সাধারণত আমরা করি না। খুবই সন্তুষ্ট।







প্রশ্ন : নিজের পারফরম্যান্স, ব্যাটিং, সিনিয়রদের ভালো করা। নিশ্চয় আপনি তৃপ্ত?

সাকিব : নিজের পারফরম্যান্স নিয়ে অবশ্যই খুশি। হয়তো আরও অবদান রাখতে পারলে ভালো হতো। সব মিলিয়ে যে ধরনের পারফরম্যান্স হয়েছে তা নিয়ে খুবই আনন্দিত।







প্রশ্ন : হাতের অবস্থা কেমন?

সাকিব : ফিজিও ভালো বলতে পারবেন। এখন অস্ত্রোপচার করতে হবে। আলোচনা হচ্ছে। কোথায় করলে ভালো হয়, কবে করলে ভালো হয়, এসব আর কী। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব করে ফেলাটাই ভালো হবে।

প্রশ্ন : এশিয়া কাপের পরে না আগে হবে অস্ত্রোপচার?







সাকিব : খুব সম্ভবত এশিয়া কাপের আগেই হবে। সেটাই হওয়া উচিত। সম্পূর্ণ ফিট না হয়ে খেলতে চাই না আমি। কাজেই সেভাবে যদি চিন্তা করি, এশিয়া কাপের আগে হবে এটাই স্বাভাবিক।

প্রশ্ন : সিনিয়ররা ৭১% রান করেছেন, জুনিয়ররা ওইভাবে পারফর্ম করতে পারেননি। এটাকে কীভাবে দেখছেন?







সাকিব : আমরা সিনিয়ররা ব্যাট করি উপরের দিকে। তাই ব্যাট করার সুযোগটা বেশি পাই। স্বাভাবিকভাবে অবদান রাখার সুযোগ আমাদেরই

বেশি। আমাদেরই অবদান রাখা উচিত। সেটাই হয়েছে।

প্রশ্ন : ‘এ’ দলের হয়ে মুমিনুল ১৮২ করেছেন। এটা নিশ্চয় ইতিবাচক?







সাকিব : ‘এ’ দলে যারা খেলে, পরে জাতীয় দলের জন্য বিবেচনা করা হয় তাদের। আসলে ‘এ’ দল নেয়া হয়ই জাতীয় দলের কথা ভেবে। কাজেই ওখানে যারা রান করে, কিংবা দল

ভালো করলে সেটা অবশ্যই জাতীয় দলের জন্য ভালো।







প্রশ্ন : ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের পারফরম্যান্স এশিয়া কাপে কতটা

কাজে দেবে?

সাকিব : সবার আত্মবিশ্বাস এখন অনেক উঁচুতে। বিশেষ করে এরকম একটা ভালো সিরিজের পর আমি বিশ্বাস করি, এখান থেকে হয়তো নতুন কিছু করার জন্য চিন্তা করতে পারি। যেটা আমাদের সামনে এশিয়া কাপে কাজে দেবে।