বিশ্বকাপ জয়ী খেলোয়ারদের যা দিচ্ছে ফ্রান্স

সব রূপকথারই একটা শেষ থাকে। রবিবার মস্কোতে ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে ফ্রান্সের বিপক্ষে ক্রোয়েশিয়া আগেই রূপ কথার গল্প লিখেই খেলতে নেমেছিল। আর সেই গল্প লুঝনিকির স্টেডিয়ামে হয়তো হ্যান্স ক্রিশ্চিয়ান এন্ডারসনের কিংবদন্তি রূপকথাকেও হার মানাতে পারতো ক্রোয়েশিয়া। কিন্তু গতিময় তারুণ্য নির্ভার ফ্রান্সের কাছে হেরে বিশ্বকাপ স্বপ্নের যবনিকা টানতে হয়েছে ৪৫ লাখ মানুষের দেশ ক্রোয়েশিয়ার।







অন্যদিকে ১৯৯৮ সালের পর দ্বিতীয়বার বিশ্বসেরা হওয়ার মুকুট অর্জন করেছে ফ্রান্স। বিশ্বজয় করে দেশে ফেরা গ্রিজম্যান-এমবাপ্পেদের মুকুটে যুক্ত হতে যাচ্ছে আরেকটি নতুন পালক। বিশ্বজয় করা ছেলেদের ফ্রান্সের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মান লিজিয় দ্য’নর দিচ্ছেন দেশটির সরকার।







দীর্ঘ একমাস পর রাশিয়া থেকে চ্যাম্পিয়ন হয়ে সোমবার নিজেদের দেশে পা রেখেছে দিদিয়ের দেশমের শিষ্যরা। বিশ্বজয়ী ছেলেদের প্লেন মাটিতে নামতেই স্বপ্নের সেই সোনালী ট্রফি হাতে প্রথমে বেরিয়ে আসেন অধিনায়ক হুগো লরিস এবং কোচ দেশম। তার পরেই এক এক করে বের হয়ে আসেন গ্রিজম্যান-পগবারা।







সোমবার দুপুরে শার্ল দ্য গল বিমানবন্দরে এমবাপ্পেদের জাতীয় বীরের সম্মান জানাতে হাজির হয় হাজার হাজার মানুষ। স্বাগত জানাতে জানাতে গ্রিজম্যানদের নিয়ে যাওয়া হয় ফরাসি প্রেসিডেন্টের বাসভবনে।







এরপর গতকাল বিকালেই খোলা বাসে করে পুরো প্যারিস শহরে ট্রফি হাতে শোভাযাত্রা করেন লরিস-এমবাপ্পেরা। সেখানে তাদের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মানে ভূষিত করার ঘোষণা করা হয়। পাশাপাশি গোটা শহরের মানুষ বিশ্বজয়ী ছেলেদের স্বাগত জানায়।







তাছাড়া প্রত্যাবর্তনকারী নায়কদের সম্মানে প্যারিসের বেশ কয়েকটি মেট্রো স্টপগুলি সাময়িকভাবে পুনরায় নামকরণ করা হয়েছে। উদাহরণস্বরূপ, ভিক্টর হুগো স্টেশনটি নতুন নাম ‘ভিক্টর হুগো ললোরিস’।