এগিয়ে আনা হয়েছে বিপিএল, আশরাফুল কি নিষেদ্ধাজ্ঞা কাটিয়ে খেলতে পারবে কি পারবে না দেখেনিন

দুই দফা দিন-তারিখ পেছানোর পর নতুন ভেন্যু সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিপিএলের গেল আসরের পর্দা উঠেছিল ৪ নভেম্বর। টুর্নামেন্ট শেষ হওয়ার পর ঘোষণা দেয়া হয়েছিল, ষষ্ট আসরের খেলা এগিয়ে আনা হবে।
figure>






<

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

figure>






মানে মাসের হিসেবে এগিয়ে আসবে বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের সবচেয়ে জাঁকজমকপূর্ণ এই আসরটি। অবশেষে হয়তো সেই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত হতে যাচ্ছে।
figure>






শোনা যাচ্ছে, এ বছরের ৫ অক্টোবর থেকে বিপিএল আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে গভর্নিং কাউন্সিল। যা শেষ হবে ১৬ নভেম্বর। তবে বিশেষ কোনো পরিবর্তন আনা হচ্ছে না এই আসরে। অংশগ্রহনকারী দলের সংখ্যা গতবারের মতোই ৭টি।
figure>






পঞ্চম বিপিএলের ধারাবাহিকতায় এবারও ভেন্যুর সংখ্যা থাকছে ৩টি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) এক পরিচালক বুধবার এ তথ্য দিয়েছেন।
figure>






কেন এগিয়ে আনা হলো? এমন প্রশ্নের জবাবে ওই পরিচালক জানালেন, ‘নভেম্বরের শেষ সপ্তাহ থেকে দেশের মাটিতে সিরিজ আছে। তাই আমরা এগিয়ে আনছি।’
figure>






তবে বিষয়গুলো এখনও আলোচনার পর্যযায়েই আছে। খুব শিগগিরই বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সভায় সবকিছু চূড়ান্ত করা হবে।
figure>






এদিকে চলতি বছরের আগস্টে শেষ হচ্ছে মোহাম্মদ আশরাফুলের সব ধরনের নিষেধাজ্ঞা। আর বিপিএল এগিয়ে আনলেও তা শুরু হবে আশরাফুলের নিষেদ্ধাজ্ঞা শেষ হওয়ার পর। তাই বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) এই আসরেই দেখা যাবে তাকে। ইতি মধ্যে তার সাথে কথাও বলেছে নাকি কয়েকটি দলের ফ্রাঞ্চাইজিরা।
figure>






তাই এবারের বিপিএলকে টার্গেট করেই এগিয়ে যাচ্ছেন টেস্ট ক্রিকেটের সর্বকনিষ্ঠ সেঞ্চুরিয়ান। নিজেকে এর আগেই সম্পূর্ণ ফিট করতে চান তিনি। কাজও শুরু করেছেন। আর তাতে ফলাফলটাও পাচ্ছেন হাতেনাতে। চলতি প্রিমিয়ার লিগে রেকর্ড ৫টি সেঞ্চুরি করেছেন এ ব্যাটসম্যান।
figure>






বিপিএলের দ্বিতীয় আসরে ম্যাচ গড়পেটা করে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন মোহাম্মদ আশরাফুল। এরপর বছর দুই আগে শর্তসাপেক্ষে ফিরেছেন। আসন্ন বিপিএলে সম্পূর্ণ নতুন রূপেই ফিরতে চান তিনি। মূলত ফিটনেস ঠিক করাই তার লক্ষ্য।
figure>






ঢাকা লিগের পর হবে বিসিএলের শেষ তিন রাউন্ডের খেলা। এরপর বেশ লম্বা বিরতি। সেই সময়টাকেই ফিটনেস ঠিক করার মোক্ষম সময় মনে করছেন আশরাফুল, ‘সামনে বিসিএল আছে। এরপর বেশ লম্বা একটা সময় বিরতি আছে। ওই সময়টাকে কাজে লাগাতে হবে। ফিটনেসটাকে সেই পর্যায়ে নিয়ে যেতে হবে যাতে বিপিএলে মনে হয়, আমি সম্পূর্ণ ফিট।’
figure>






figure>






টানা তিন বছর মাঠের বাইরে থাকায় ফিটনেসটা সেভাবে ধরে রাখতে পারেননি আশরাফুল। তাই গত আসরটা ভালো যায়নি। চলতি আসরের শুরুতেও ছিল একই দশা। তখন টাইগার অধিনায়ক আশরাফুলের খুব কাছের বন্ধু মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার উৎসাহে নতুন উদ্যমে ফিটনেস নিয়ে কাজ করেন। তখন থেকেই ভাত খাওয়া বন্ধ।
figure>






আর জিমে কঠোর অনুশীলন। এর মধ্যেই ওজন কমিয়েছেন। আশরাফুলের ভাষায়, ‘পরপর দুইটা ম্যাচে শূন্য মারার পর একদিন ড্রেসিং রুমে এসেছিলো। তখন আমাকে এসে বলছে ফিটনেসটা নিয়ে কাজ করতে। বলল, ফিটনেসটা ঠিক করতে পারলে এখানে রান করা কোন ব্যাপার না, আমার জন্য। তো তখন থেকেই এ নিয়ে কাজ করছি। এখন অনেকটা ফিট।’
figure>






মাশরাফীর কথায় যে টনিকের মতো কাজ করেছে তার প্রমাণ এবার প্রিমিয়ার লিগে। ৫টি সেঞ্চুরি করেছেন আশরাফুল। শুরুতে ধারাবাহিকতার অভাব ছিলো। শেষদিকে সেটাও কাটিয়ে উঠতে পেরেছেন।
figure>






ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

figure>






শেষ ৩ ম্যাচে টানা ৩ সেঞ্চুরি। সবই প্রিমিয়ার লিগে এমনকি লিস্ট ক্রিকেটেও বাংলাদেশের নতুন রেকর্ড। আর তাতে দারুণ উচ্ছ্বসিত এ তারকা, ‘আল্লাহর রহমতে ভালো হয়েছে। সুপার লিগে উঠতে পারিনি। এমনকি দল নেমে গেছে রেলিগেশনে। দুইটা ম্যাচ বোনাস খেলতে পারছি। তো এটা দলের জন্য কিছুই হয় নাই। ব্যক্তিগতভাবে সুযোগ ছিলো। সে সুযোগ কাজে লাগাতে পেরেছি। এটাই ভালো লাগছে।’
figure>






ব্যাটে রান মিলছে নিয়মিত। ধারাবাহিকও হয়েছেন। সামনে ভালো কোন সংবাদ পেতে হলে ফিটনেসকেই মূল উপাদান মানছেন আশরাফুল। কারণ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নতুন করে নিজেকে প্রমাণ করার কিছু নেই তার। সে পরীক্ষা দিয়েছেন অনেক আগেই। তাই ফিটনেস নিয়ে কাজ করে যেতে যান তিনি। বিপিএলের আগেই নিজেকে সম্পূর্ণ ফিট করার চ্যালেঞ্জটাই নিয়েছেন সাবেক এ অধিনায়ক।
figure>