সাকিবের সেঞ্চুরি দেখে আবেগে কাঁদলেন শিশির

0
108

সাকিবের সেঞ্চুরির মুহূর্তে কেঁদে দেন তার প্রিয়তম স্ত্রী শিশির। ক্যামেরায় ধরা পড়ে সাকিবপত্নীর এই আবেগভরা মুহূর্তটি। সাকিব আল হাসানের অল রাউন্ড নৈপুণ্যে উইন্ডিজের রানের পাহাড় টপকে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। বল হাতে দুই উইকেটের পাশাপাশি ব্যাট হাতে করেছেন দুর্দান্ত শতক।

বাউন্ডারি মেরে নিজের শতরানে পৌঁছান সাকিব। পরে টিভি রিপ্লেতে দেখা যায় বোলার দৌড়ানো শুরু করার আগে থেকেই ভয়ে চোখে হাত দিয়ে রাখেন শিশির। সাকিব বাউন্ডারি মারার পরেই চোখ খোলেন শিশির এবং তখনই আবেগে কেঁদে ফেলেন তিনি।

আজকের ম্যাচে সাকিব আল হাসানের অর্জনের অভাব নেই। সাকিবের কারণে পয়েন্ট টেবিলে তিন ধাপ এগিয়ে গেল বাংলাদেশ। গ্রেটদের টপকে ৬ হাজারি ক্লাবে সাকিব। আজকের ম্যাচে সাকিবের যতসব অর্জন:-

পয়েন্ট টেবিলে তিন ধাপ এগিয়ে গেল বাংলাদেশ: ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ দল। আর এটাই বিশ্বকাপের পয়েন্ট টেবিলে ৮ নম্বর থেকে ৫ নম্বরে উঠে এসেছে বাংলাদেশ দল।

ওয়ানডে ক্রিকেটে এতদিন সর্বোচ্চ ৩১৮ রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড ছিল বাংলাদেশের। ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে এসেছিল সে জয়। আজ তারা ছাড়িয়ে গেল সে ম্যাচকে। নিজেদের ইতিহাসের সর্বোচ্চ ৩২১ রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড করলো টাইগাররা।

এ ম্যাচ জয়ের নায়ক নিঃসন্দেহে সাকিব আল হাসান। বল হাতে ২ উইকেট নেয়ার পাশাপাশি ব্যাট হাতেও খেলেছেন মাত্র ৯৯ বলে ১২৪ রানের অনবদ্য ইনিংস। তাকে যোগ্য সঙ্গ দিয়ে লিটন অপরাজিত থাকেন মাত্র ৬৯ বলে ৯৪ রানের ইনিংস খেলে।

গ্রেটদের টপকে ৬ হাজারি ক্লাবে সাকিব: সোমবার (১৭ জুন) ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ব্যক্তিগত ২৩ রান করে সাকিব টপকে গেলেন চন্দরপল, শেওয়াগ, সাঙ্গাকারাদের মতো কিংবদন্তিদের। চলতি বিশ্বকাপে ব্যাট হাতে দুর্দান্ত ফর্মে সাকিব আল হাসান। আগের তিন ম্যাচে দুই ফিফটি আর এক সেঞ্চুরিতে তারই প্রমাণ দিয়েছেন দেশসেরা এই অলরাউন্ডার। সাকিব তার খেলা এই বিশ্বকাপের আগের তিন ইনিংসে করেছেন যথাক্রমে ৭৫, ৬৪ আর ১২১ রান।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সেঞ্চুরি করে সাকিব স্পর্শ করেন ওয়ানডে ক্যারিয়ারের অষ্টম আর বিশ্বকাপের প্রথম সেঞ্চুরি। দারুণ এই ইনিংসের পর ওয়ানডে ফরম্যাটে সাকিবের মোট রান দাঁড়ায় ৫৯৭৭। আর মাত্র ২৩ রান করলে স্পর্শ করবেন ৬ হাজার রানের মাইলফলক-এমন হিসেব মিলিয়ে দিয়েছেন উইন্ডিজদের বিপক্ষে ব্যাট হাতে নেমে। তামিমের পর বাংলাদেশের দ্বিতীয় কোনো ব্যাটসম্যান হিসেবে এই মাইলফলকে নাম লেখালেন সাকিব। মোটা দাগে বলা যায়, ব্যাট হাতে ২৩ রান করেই ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ৬ হাজারি ক্লাবের সদস্য হলেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার।

তাতে একদিক দিয়ে টপকে গেলেন ক্রিকেটের সাবেক কয়জন কিংবদন্তিকে। ২০২ ওয়ানডে ম্যাচের ১৯০ ইনিংসে সাকিব স্পর্শ করেছেন ৬ হাজার রান। যেখানে আছে অপরাজিত ১৩৪ রানের সেরা ইনিংস। এতোদিন ৩৬.৬৬ গড়ে ৮২.০৯ স্ট্রাইকরেটে সাকিবের নামের পাশে ছিল আটটি সেঞ্চুরি, ছিল ৪৪টি ফিফটির ইনিংস। অপরাজিত ছিলেন ২৬টি ইনিংসে।

ক্যারিবীয়ানদের বিপক্ষে ২৩ রান করে দ্রুততম সময়ে ৬ হাজারি ক্লাবের সদস্য হয়ে সাকিব টপকে গিয়েছেন উইন্ডিজ গ্রেট শিব নারায়ন চন্দরপল, ভারতের সাবেক ওপেনার বিরেন্দর শেওয়াগ, লঙ্কান গ্রেট কুমার সাঙ্গাকারাদের।

সাকিব ব্যাট হাতে উইন্ডিজদের বিপক্ষে নেমেছেন ১৯০তম ইনিংসে। ১৯০ ইনিংস খেলে ৬ হাজার ওয়ানডে রান স্পর্শ করেছেন চন্দরপল, শেওয়াগরা। সাঙ্গাকারা ৬ হাজারি ক্লাবের সদস্য হয়েছেন ১৯২ ইনিংসে। ক্যারিবীয়ানদের বিপক্ষে ১৯০তম ইনিংসে সাকিব ২৩ রান করে টপকে যান তাদের। পেছনে ফেলেছেন ১৯২ ইনিংসে ৬ হাজার রান স্পর্শ করা ভারতের যুবরাজ সিং, শ্রীলঙ্কার উপুল থারাঙ্গা (১৯২ ইনিংস), জিম্বাবুয়ের অ্যান্ডি ফ্লাওয়ার (১৯৩ ইনিংস), লঙ্কান গ্রেট ডি সিলভা (১৯৪ ইনিংস), জিম্বাবুয়ের গ্রান্ট ফ্লাওয়ারদের (১৯৬ ইনিংস)।

দ্রুততম সময়ে ৬ হাজারি ক্লাবের সদস্যদের তালিকায় শীর্ষে দক্ষিণ আফ্রিকার ওপেনার হাশিম আমলা। সাকিব এই মাইলফলকে ৩৫তম সদস্য। আমলা ২০০৮ সালে মুম্বাইয়ে ভারতের বিপক্ষে নিজের ১২৩তম ইনিংসে ৬ হাজার ওয়ানডে রান স্পর্শ করেন। দুইয়ে থাকা বিরাট কোহলি সেটি স্পর্শ করতে খেলেন ১৩৬টি ইনিংস। তিনে থাকা ক্যারিবীয়ান কিংবদন্তি স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডসকে খেলতে হয়েছিল ১৪১ ইনিংস। ভারতের সৌরভ গাঙ্গুলী আর দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্সের লেগেছিল ১৪৭ ইনিংস।

এই কীর্তিতে নাম লেখানো সাকিবের পেছনে থাকলেন অ্যালান বোর্ডার, স্টিভ ওয়াহ, ব্রেন্ডন ম্যাককালাম, ইজাজ আহমেদ, মাহেলা জয়াবর্ধনে, সনাথ জয়সুরিয়া, স্টিফেন ফ্লেমিং, ইউনিস খান, অর্জুনা রানাতুঙ্গা, মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন, দিলশানরা।