কোরবানির মাংসটা তিন ভাগ করতে হয়। আত্মীয়স্বজন, প্রতিবেশী এবং নিজের…তাহলে? জেনে নিন-

0
14

নামাজ, রোজা, হজ, জাকাত, পরিবার, সমাজসহ জীবনঘনিষ্ঠ ইসলামবিষয়ক প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠান ‘আপনার জিজ্ঞাসা’। শরীফ বায়জীদ মাহমুদের উপস্থাপনায় দেশের বেসরকারি একটি টেলিভিশনের জনপ্রিয় এ অনুষ্ঠানে দ‍র্শকের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বিশিষ্ট আলেম ড. মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ।







প্রশ্ন : আমরা যতটুকু জানি, কোরবানির মাংসটা তিন ভাগ করতে হয়। আত্মীয়স্বজন, প্রতিবেশী এবং নিজের। এখন আমার প্রশ্ন হচ্ছে, যারা গরিব, তাদের অংশটা কোন ভাগ থেকে দেবো?







উত্তর : আত্মীয়স্বজনের মধ্যে এক ভাগ থাকবে। সে ক্ষেত্রে আত্মীয়স্বজনের মধ্যে প্রতিবেশীরাও ভাগ পাবেন। আল্লাহ সুবহানাহুতায়লা কোরআনে কারিমে সুরা হজের মধ্যে বলেছেন, ‘এখানে সবচেয়ে বড় হক হচ্ছে যারা দুস্থ, অভাবী, ফকির, মিসকিন তাদের। তাদের এখান থেকে খাওয়াতে হবে, কারণ এটি আল্লাহর হক।’ আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের জন্য যে কোরবানি করলেন সেটি কোথায়, সেটি এই ভাগের মধ্যেই রয়েছে।







সুতরাং এটি আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের হক। সে ক্ষেত্রে ফকিরদের আপনি অবশ্যই ভাগ দেবেন। ফকিরদের অংশটুকু বাদ দিয়ে আত্মীয়স্বজনদের দেবেন, বিষয়টি এমন না। আত্মীয়দের দেওয়া হচ্ছে সৌজন্য। আল্লাহতায়ালা ঈদের আনন্দের সঙ্গে তাঁদেরও শামিল করানোর জন্য এখানে সৌজন্য করেছেন।







ফকিরদের অংশটুকু অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে। আর নিজের ভাগটুকু আপনি রাখতে পারেন। নিজের ভাগটা যতই কম করবেন, সেখানে আল্লাহর হকটুকু ততই বেশি হবে।