টাকার জন্য গোপনে এমনটাও করতে পারেন মেয়েরা! বিস্তারিত জানলে অবাক হবেন

0
178

সুখী এবং স্বচ্ছল জীবনযাপনের জন্য অর্থের প্রয়োজন রয়েছে অবশ্যই। কিন্তু সকলেই সৎ পথে অর্থ রোজগারের উপায় করতে পারেন না। বাধ্য হয়ে তাঁরা অসৎ পথ বেছে নেন।

স্বভাবে হোক কিংবা অভাবে— কেউ কেউ বেছে নেন চুরির পথ। ক্ষেত্র বিশেষে চুরিও একটা শিল্পের পর্যায়ে উন্নীত হতে পারে। সম্প্রতি সেই বিষয়টিই যেন সামনে এসেছে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিও-র মাধ্যমে।

ভিডিওটি ব্রাজিলের একটি ডিপার্টমেন্টাল স্টোরের। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, শর্ট স্কার্ট পরিহিত দুই যুবতীকে আটক করেছেন দোকানের কর্মীরা। বোঝাই যাচ্ছে, তাঁদের বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ রয়েছে।

ক্রেতা সেজে দোকানে ঢুকে তার পর দোকানে রাখা জিনিসপত্র হাতাচ্ছিলেন দু’জনে। সেই সময়েই হাতেনাতে দুই তরুণীকে ধরে ফেলেন দোকানের কর্মচারীরা। কিন্তু তাঁদের আসল ‘কৃতিত্ব’ চুরিতে নয়, চুরির কৌশলে।

কর্মচারীদের হাতে ধরা পড়ার পরে দুই তরুণী যখন নিজেদের চুরি করা মাল বার করে দিচ্ছেন, তখনই ধরা পড়ছে তাঁদের চুরির অভিনব কৌশল। দেখা যাচ্ছে, তাঁরা ছোট স্কার্টের ভিতরে পরেছেন লম্বা অন্তর্বাস।

সেই অন্তর্বাসের ভিতরে ঢুকিয়ে নিয়েছেন একটি লম্বা পিচবোর্ডের টুকরো। বাইরে থেকে বোঝার কোনও উপায় নেই, তাঁদের পোশাকের ভিতরের এই বন্দোবস্ত। দোকানে ঢোকার পরে কর্মচারী ও রক্ষীদের নজর এড়িয়ে তাঁরা তাঁদের চুরি করা জিনিস ঢুকিয়ে ফেলছেন নিজেদের অন্তর্বাসের ভিতরে।

ভিতরে পিচবোর্ডের টুকরোটি কাজ করছে সুরক্ষাকবচ হিসেবে। অন্তর্বাসের ভিতর থেকে কোনও জিনিস পা বেয়ে নেমে আসার সম্ভাবনা থাকছে না। ফলে দিব্যি চৌর্যবৃত্তি চালিয়ে যাচ্ছেন দু’জনে।

ধরা পড়ার পরে তাঁরা যখন হৃত জিনিসপত্র বার করে দিচ্ছেন তাঁদের লুপ্ত ভাণ্ডার থেকে, তখনই বোঝা যাচ্ছে, কেবল একটি নমনীয় অন্তর্বাসের ভিতরে কত কিছু ঢুকিয়ে রাখা যেতে পারে। কাঁড়ি কাঁড়ি চুরি করা জিনিস নিজেদের অন্তর্বাসের ভিতর থেকে বার করতে দেখা গিয়েছে দু’জনকে।