সরকারকে ধন্যবাদ জানালেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য

সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। তিনি বলেছেন, আমরা খালেদা জিয়াকে দেশনেত্রী বানিয়েছিলাম। আপনারা নেলসন মেন্ডেলা বানিয়ে দিয়েছেন। এজন্য আপনাদেরকে ধন্যবাদ।

মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আয়োজিত অবস্থান কর্মসূচিতে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, স্পট পরিবর্তনে আপনাদের কষ্ট হয়েছে। এর জন্য আমরা দায়ী নয়। খালেদা জিয়া বন্দি মানে গণতন্ত্র বন্দি। আমরা আন্দোলনের মাধ্যমে স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষা করবো।

বিএনপিতে ভাঙন ধরানোর ক্ষমতা বাংলাদেশের কারো নেই উল্লেখ করে বিএনপির এই বলেন, অনেকে ভেবেছেন কিছু একটা হয়ে যাবে। ইনশাআল্লাহ কিছুই হবে না।

বেলা ১১টা ১০ মিনিটে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে আজকের অবস্থান কর্মসূচি শুরু করা হয়। কর্মসূচিতে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সভাপতিত্ব করেন।

এসময় দলের সিনিয়র নেতাদের মধ্যে অবস্থান কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড.খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন, এ জেড এম জাহিদ হোসেন, এ জেড এম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, জয়নাল আবদীন ফারুক, হাবিবুর রহমান হাবিব, আবুল খায়ের ভূইয়া, সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ সেলিম ভূইয়া, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, শহীদুল ইসলাম বাবুল, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সহ-সম্পাদক কাদের গণি চৌধুরী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নিরব, সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দীন টুকু, সাংগঠনিক সম্পাদক মামুন হাসান প্রমুখ।

এছাড়া ২০ দলীয় জোট নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, এলডিপির শাহাদত হোসেন সেলিম, ন্যাপের গোলাম মোস্তফা ভূইয়া, এনপিপির মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা, জাগপার খন্দকার লুৎফর রহমান, এনডিপির মঞ্জুর হোসেন ঈশা, লেবার পার্টির মোস্তাফিজুর রহমান নিরব, পিজিপির আব্দুল মতিন সাউদ প্রমুখ।

বিএনপির এই কর্মসূচীকে কেন্দ্র করে বরাবরের মতো আজো অসংখ্য নেতাকর্মীদের উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরাও ছিলেন সতর্ক অবস্থানে।

Comments

comments