রান্নাঘরের বাজে দুর্গন্ধ দূর করার ১০টি উপায়

রান্নাঘরে বাজে গন্ধ হয় না, এমন মানুষ খুঁজলেও মিলবে না। বাথরুমের পরই যেন সবচাইতে দুর্গন্ধময় স্থান হচ্ছে রান্নাঘর। যতই পরিষ্কার করুন না কেন, একটা বাজে গন্ধ থেকেই যায়। নিজের কাছেও তো খারাপ লাগে এমন পরিবেশন, তাই না? তাই শুধু রাঁধলেই হবে না, জানতে হবে রান্নাঘর দুর্গন্ধ মুক্ত রাখার কৌশল। জেনে নিন খুব সহজে রান্নাঘরের দুর্গন্ধ দূরে রাখার ১০টি দারুণ কৌশল।

১) ময়লা ফেলার জন্য অবশ্যই ঢাকনা লাগানো ময়লার ঝুড়ি ব্যবহার করুন। আর মাছ-মাংস ইত্যাদির কাঁচা উচ্ছিষ্ট অংশ ফেলার অবশ্যই প্লাস্টিক বা কাগজের প্যাকেট ব্যবহার করুন। প্যাকেটে মুড়ে টবেই এসব ময়লার ঝুড়িতে ফেলবেন।

২) আপনার থালা বাসন মাজার স্পঞ্জটি প্রত্যেক সপ্তাহে বদলে ফেলুন। কেন বলছি এ কথা? স্পঞ্জটিকে নাকের কাছে নিন, তাহলে বুঝবেন। এই বস্তুও রান্নাঘরে দুর্গন্ধের উৎস। আর ব্যবহৃত স্পঞ্জ প্রত্যেকদিন গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নেবেন।

৩) পানির সাথে সামান্য বেকিং সোডা মিশিয়ে রান্নাঘর পরিষ্কার করুন। চুলা থেকে শুরু করে মেঝে পর্যন্ত, মনে করে বেকিং সোডা ব্যবহার করবেন। গন্ধ একদম গায়েব হয়ে যাবে।

৪) রান্নাঘরে ভ্যাপসা গন্ধ জমে গেলে লেবু বা কমলার খোসা পানিতে জ্বাল দিন, সাথে যোগ করুন কয়েক টুকরো দারুচিনি। ফুটে উঠলেই দেখবেন দারুণ গন্ধ ছড়াচ্ছে। রান্নাঘরকে তাজা রাখতে খুব কাজে আসবে এই উপায়।

৫) রান্নাঘরের কোথাও একটি বাটিতে বেকিং সোডা বা ভিনেগার ভরে খোলা রাখুন। বাজে গন্ধ শুষে নেবে।

৬) রান্নাঘরে ব্যবহারের জন্য পছন্দের ফ্লেভারের এয়ার ফ্রেশনার অবশ্যই কিনে নেবেন।

৭) রান্নাঘরে পর্যাপ্ত আলো বাতাস চলাচলের ব্যবস্থা রাখুন। রান্নার ধোঁয়া যেন বের হয়ে যেতে পারে, সেই ব্যবস্থাও অবশ্যই রাখুন।

৮) মাসে একদিন রান্নাঘর গরম পানি ও ডিটারজেনট দিয়ে অবশ্যই পরিষ্কার করুন।

৯) থালা বাসন বেসিনে জমিয়ে রাখবেন না। নিদেন পক্ষে পানি দিয়ে ধুয়ে তারপর পরে মাজার জন্য রাখুন।

১০) ভাজা পোড়ার পুরনো তেল জমিয়ে রাখবেন না। তেল চিটচিটে কিছুই জমিয়ে রাখবেন না রান্নাঘরে।
লেখাটি পছন্দ হইলে শেয়ার করতে ভুলবেন না।
নিয়মিত সুন্দর সুন্দর টিপস পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ এ অ্যাক্টিভ থাকুন।

Comments

comments