Sunday , 20 May 2018

হঠাৎ শুভ বুদ্ধির উদয় হলো প্রিন্স সালমানের এবার সৌদিতে অবস্থানরত প্রবাসীদের জন্য যে বিশেষ ঘোষনা দিলেন

সৌদি আরব তার দেশের প্রবাসী জনগোষ্ঠীর জন্য একটি “স্থায়ী আবাস” পদ্ধতি বিবেচনা করছে। বিশ্বব্যাপী জ্বালানী তেলের অস্বাভাবিক দর পতনের কারণে তেল নির্ভরতা কমাতেই এই পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। “আগামী ৫ বছরের মধ্যে এই ব্যবস্থা প্রবর্তন করা হবে’।







আল-আরাবিয়া টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন প্রিন্স সালমান।

দেশের রাজস্ব আয় বৃদ্ধির পরিকল্পনার অংশ হিসেবে আমেরিকার আদলে একটি গ্রিন কার্ড পদ্ধতি প্রবর্তনের চিন্তা করা হয়েছে। প্রবাসীদের পক্ষ থেকে এই পরিকল্পনাকে স্বাগত জানিয়েছেন অনেকেই।

এই প্রকল্প কার্যকর হলে প্রবাসী কর্মীদের দুঃসহ কফিল জীবনের অবসান হবে বলে মনে করেন তাদের কেউ কেউ। এতে করে সকল বৈধ অবৈধ শ্রমিককে কফিলের অনৈতিক মুনাফালোভি মানসিকতা থেকে রক্ষা করবে।







সৌদি আরবের একটি স্থানীয় পত্রিকার বরাতে বলা হয় দেশের শ্রম বিষয়ক বিশেষ কমিটির প্রধান ‘নিদাল রিদওয়ান’ একটি স্বতন্ত্র কর্তৃপক্ষ গঠন করে এই কার্যক্রম বাস্তবায়নের আশা প্রকাশ করেন। এই পদ্ধতি সৌদি স্বরাষ্ট্র (জাওয়াযাত) ও শ্রম মন্ত্রনালয় এর সাথে সমন্বয় থাকবে।







বর্তমানে একজন বিদেশী নাগরিক কেবলমাত্র সৌদি কফিল পদ্ধতি বা হজ্বের জন্য এই দেশে আসতে পারেন। নতুন এই পদ্ধতিতে দক্ষ কর্মীরা তাদের নিজের জিম্মাদারিতেই এখানে আসতে পারবে।

এর দ্বারা বর্তমানের কাফালা পদ্ধতির অবসান ঘটবে বলে মনে করেন অনেকে।সৌদি আরবে কর্মরত কিছু অভিবাসী বিশেষজ্ঞের মতে নতুন এই কার্ড পদ্ধতিতে প্রবাসীরা সৌদি নাগরিকের মতো বেশ কিছু সুযোগ সুবিধা পেতে পারেন