কিডনি একবার নষ্ট হলে আর ফিরে পাবেন না। কিডনি ভালো রাখার সহজ সাত উপায় জেনে নিন

কিডনি একবার নষ্ট হলে আর ফিরে পাবেন না। কিডনি ভালো রাখার সহজ সাত উপায় জানুন এখনি…দীর্ঘমেয়াদি কিডনি রোগ সারা বিশ্বে একটি জটিল সমস্যা।
তবে জানেন কি, কিছু সহজ বিষয় মেনে চললে কিডনির রোগ অনেকটা প্রতিরোধ করা যায়।
জীবনধারাবিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাইয়ের স্বাস্থ্য বিভাগে জানানো হয়েছে







কিডনি ভালো রাখার কিছু উপায়ের কথাঃ
১. পরিবারের ইতিহাস জানুন পরিবারে কিডনির সমস্যা কারো আগে ছিল কি না জেনে নিন।
পরিবারের কারো সমস্যা থাকলে আপনার কিডনির কার্যক্রম পরীক্ষা করুন।
অনেকের ক্ষেত্রেই কিডনির সমস্যা থাকে, তবে আগে থেকে লক্ষণ দেখা যায় না।
তাই নিয়মিত কিডনির কার্যক্রম পরীক্ষা করুন।







২. রক্তের সুগার পরীক্ষা ডায়াবেটিস থাকলে কিডনির রোগ হওয়ার আশঙ্কা থাকে।
অনেক ডায়াবেটিস রোগীই কিডনি ফেইলিউরের সমস্যায় আক্রান্ত হন।
তাই ডায়াবেটিস রোগীদের রক্তের সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখা জরুরি।







৩. উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ উচ্চ রক্তচাপ স্ট্রোক ও হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ায়।
পাশাপাশি এটি কিডনি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ারও একটি কারণ।
ঝুঁকি আরো বেড়ে যায় যদি ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপ একত্রে থাকে।
আপনার পরিবারের উচ্চ রক্তচাপ ও কিডনি রোগের ইতিহাস থাকলে উচ্চ রক্তচাপ পরীক্ষা করান।







৪. কর্মক্ষম জীবন-যাপন করুন কর্মক্ষম না থাকা কিডনির রোগ বাড়িয়ে দেয়।
সেডেনটারি জীবন-যাপন অর্থাৎ ব্যায়াম না করা, অস্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া ইত্যাদি
ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, ওজন ইত্যাদি বাড়িয়ে দেয়।
আর এগুলো কিডনি রোগের ঝুঁকি বাড়ায়।

৫. স্বাস্থ্যকর খাবার খান স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া বিভিন্ন রোগপ্রতিরোধে সহায়ক।
ফল ও সবজি খান বেশি করে।
প্রক্রিয়াজাত খাবার খাওয়া এড়িয়ে চলুন।
ডায়েটেশিয়ানের পরামর্শ নিয়ে কিডনির জন্য যেসব খাবার ভালো সেগুলো খান।







৬. ক্ষতিকর অভ্যাস বাদ দিন ধূমপান এড়িয়ে চলুন।
এটি যেমন ফুসফুসের ক্ষতি করে, তেমনি কিডনিরও ক্ষতি করে।

৭. পানি পান করুন আমরা জানি, পর্যাপ্ত পানি পান করা কিডনিকে ভালো রাখতে সাহায্য করে।
তবে জানেন কি অতিরিক্ত পানি পান করলে কিন্তু কিডনির ওপর চাপ পড়ে?
তাই আপনার শরীরে কতটুকু পানি প্রয়োজন সেটি চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে জেনে নিন।