Sunday , 20 May 2018

শাকিব খানের যেসব ছবি মুক্তি পাবে না কখনোই?

বর্তমান সময়ে বেশ আলোচিত ও সমালোচিত বাংলা সিনেমার কিংখান খ্যাত নায়ক সুপার স্টার শাকিব খান। সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত ‘অনন্ত ভালোবাসা’ ছায়াছবির মাধ্যমে তার অভিনয় জীবন শুরু করেন। কিন্তু এ সিনেমাটি সফলতার মুখ দেখেনি।













তবে সময়ের হার্টথ্রব ও শীর্ষ নায়িকা শাবনূর এর বিপরীতে অভিনয় জীবনের দ্বিতীয় বছরেই ভালো অভিনয় করে আলোচিত হন এবং খুব তাড়াতাড়ি শাবনূর-শাকিব খান জুটি বাংলা সিনেমার অন্যতম ব্যবসাসফল ও প্রযোজকদের আস্থাভাজন জুটিতে পরিণত হয়। আর তখনি সবাই বলাবলি করে, ছেলেটি ভালো ফাইট করে, নাচে দুর্দান্ত, দেখতে সুন্দর।

এরপর বহু চড়াই উৎরাই পেরিয়ে শাকিব খান বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ইতিহাসে সবচেয়ে সফল এবং সর্বোচ্চ বেতনভোগী অভিনেতা হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন। তাকে আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি। অসংখ্য ব্যবসা সফল ও জনপ্রিয় সিনেমা উপহার দিয়ে হয়েছেন ঢালিউডের কিং খান।













আলোচিত এ সুপার হিরো সমালোচিত হল জনপ্রিয় নায়িকা অপু বিশ্বাসকে গোপনে বিয়ে করে তাদের ৮ বছরের সংসার জীবনের অবসান ঘটানোর পর। অপু-শাকিবের একটি সন্তানও রয়েছে।

এদিকে মজার বিষয়ে হচ্ছে শাকিবকে নিয়ে ছবি বানানোর ঘোষণা দিয়ে দেন নির্মাতারা যার কিনা চুক্তি হয়নি। কিন্তু পরবর্তীতে শাকিব রাজি না হওয়ায় সে ছবি আর নির্মাণ হয়নি। তবে অবাক করার বিষয় হচ্ছে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন, অভিনয়ও করেছেন এমন অনেক সিনেমাই মাঝ পথে এসে থেমে গেছে। তার মধ্যে একটি ছবি হচ্ছে এম এ রহিম পরিচালিত ‘রানা দ্য ফাইটার’।













শুধু তাই নয় মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ‘মাই ডার্লিং’ শাকিব-অপুর শিডিউল জটিলতায় আটকে গেছে। আদো সে ছবির শুটিং হবে কিনা বলা মুশকিল। এছাড়া রয়েছে জি সরকার পরিচালিত ‘লাভ ২০১৪’। যেটি বছরের পর বছর ঘুরছে শাকিব খানের শিডিউলের আশায়। বছর ঘুরলেই ছবির নামও পাল্টে যায়। শুধু ‘লাভ’ ঠিক থাকে। ছবিটির নাম ২০১৫, ১৬, ১৭ বছর শেষ করে এখন এর নাম হবে হয়তো ‘লাভ ২০১৮’। তবে এ বছরও ছবিটি নির্মিত হবে কিনা তাও বলা যাচ্ছেনা সঠিক ভাবে।

‘স্বপ্নের বিদেশ’ ছবিটি প্রায় ১২ বছর ধরে আটকে আছে। এটি নজরুল ইসলাম খান পরিচালিত। তার আরো একটি সিনেমা ‘চোখ যে মনের কথা বলে’র কাজ অনেকদূর এগিয়েছিল। কিন্তু এরপর বন্ধ হয়ে যায়।













অন্যদিকে শাকিব খানের নিজের ঘোষিত ছবি ‘প্রিয়ারে’ নির্মিত হয়নি। এছাড়া ‘অপারেশন অগ্নিপথ’ নিয়ে আশার কথা শোনা গেলেও এখন পর্যন্ত ছবিটি শেষ হয়নি। আর কবেই বা শেষ হবে তা বলা খুবই মুশকিল।